মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C

লংগদু সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়

  • সংক্ষিপ্ত বর্ণনা
  • প্রতিষ্ঠাকাল
  • ইতিহাস
  • প্রধান শিক্ষক/ অধ্যক্ষ
  • অন্যান্য শিক্ষকদের তালিকা
  • ছাত্র-ছাত্রীর সংখ্যা (শ্রেণীভিত্তিক)
  • পাশের হার
  • বর্তমান পরিচালনা কমিটির তথ্য
  • বিগত ৫ বছরের সমাপনী/পাবলিক পরীক্ষার ফলাফল
  • শিক্ষাবৃত্ত তথ্যসমুহ
  • অর্জন
  • ভবিষৎ পরিকল্পনা
  • ফটোগ্যালারী
  • যোগাযোগ
  • মেধাবী ছাত্রবৃন্দ

নাম লংগদু সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়। এটি রাঙ্গামাটি জেলাধীন লংগদু উপজেলায় লংগদু ইউনিয়নে অবস্থিত। এটি লংগদু উপজেলা পরিষদ হতে আধা কিলোমিটার দূরে লংগদু-দিঘীনালা রাস্তার পাশে প্রাকৃতিক পরিবেশ ঘেরা মনোরম জায়গায় অবস্থিত। লংগদু সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের পাঠদানের কাল শুরু হয় মূলত: ১৯৬৭-৬৮ সালে মাইনীমুখ মৌজায় বর্তমান বাইট্টাপাড়া এলাকায় লংগদু জুনিয়র স্কুল হিসেবে পরিচিত। প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতা এবং জায়গায় দাতা সদস্য অনিল বিহারী চাকমা ছিলেন তৎকালীন হেডম্যান ও ইউ.পি চেয়ারম্যান। তিনি বিদ্যালয়ের নামে ১.৮০ একর জায়গা দান করেছিলেন। তাই তিনি উক্ত জায়গার দাতা সদস্য এবং প্রতিষ্ঠাতা। বিদ্যালয়ে বর্তমানে

 

প্রধান শিক্ষকের পদ                         = ০১ টি।

সহকারী শিক্ষকের পদ                      = ০৫ টি।

অফিস সহকারীর পদ                       = ০১ টি।

দপ্তরী পদ                                     = ০১ টি।

১৯৬৯

লংগদু সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের পাঠদানের কাল শুরু হয় মূলত: ১৯৬৭-৬৮ সালে মাইনীমুখ মৌজায় বর্তমান বাইট্টাপাড়া এলাকায় লংগদু জুনিয়র স্কুল হিসেবে। ১৯৬৭ ইং হতে ১৯৭৩ ইং পর্যন্ত ধর্মরাজ বড়ুয়া প্রধান শিক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৭৩-৭৪ সালে সুখময় চাকমা প্রধান শিক্ষকের দায়িত্বে ছিলেন। তখন ৬ষ্ঠ-৮ম শ্রেণী পর্যন্ত বিদ্যালয়ে পাঠদান হত নিম্ম-মাধ্যমিক হিসেবে প্রথম স্বীকৃতি পায় ০১/০১/১৯৭৫ ইং সনে এবং একই বছর ৯ম শ্রেণী পাঠদানের অনুমোদন লাভ করে। মাধ্যমিক স্কুল হিসেবে স্কীকৃতি পায় ১৯৮০ ইং সনে। তখন বেসরকারী প্রতিষ্ঠানের কোড নং: ১৩০৪। ৯ম শ্রেণী খোলার অনুমতি: ০১-০১-১৯৭৫ ইং। পত্র নং- ৭৫/২১৬৬, তারিভ: ১৭-০৬-১৯৭৫ ইং। ১৯৭৮ ইং সনে ১ম বারের মত রাঙ্গামাটি জেলাধীন বাঘাইছড়ি উপজেলায় কাচালং উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে লংগদু সরকারী উচ্চ বিদ্যালয় হতে ৪৪ জন ছাত্র-ছাত্রী মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ড, কুমিল্লা এর অধীনে (পত্র নং- ৪৭৬০, তারিখ- ১১.১১.১৯৭৭) এস.এস.সি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে। বিদ্যালয়ে বিজ্ঞান, মানবিক ও ব্যবসায় শিক্ষা ৩টি বিভাগ ছিল। বর্তমানে শিক্ষক সংকটের কারণে শুধু মানবিক বিভাগ চালু রয়েছে।

বর্তমানে অত্র বিদ্যালয়টি জে.এস.সি, এস.এস.সি এবং এইচ.এস.সি পরীক্ষার কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহার হচ্ছে।

ছবি নাম মোবাইল ইমেইল
বৃষক কুমার চাকমা 01556775883 brishakchakma@gmail.com

ছবি নাম মোবাইল ইমেইল

শ্রেণী

ছাত্র

ছাত্রী

মোট

ষষ্ঠ

০৭ জন

০০ জন

০৭ জন

সপ্তম

০৪ জন

০১ জন

০৫জন

অষ্ঠম

১৯জন

০৮ জন

২৭ জন

নবম

২৩ জন

১৪ জন

৩৭ জন

দশম

১৬ জন

০৯ জন

২৫জন

সর্বমোট

৬৯ জন

৩২ জন

১০১ জন

৭৭.২৭%

উপজেলা নির্বাহী অফিসার- সভাপতি।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা - সদস্য।

জেলা শিক্ষা অফিসার- সদস্য।

শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর-এর-উপ-সহকারী প্রকৌশলী- সদস্য।

প্রধান শিক্ষক- সদস্য সচিব

 বিগত ৫ বছরের জে.এস.সি পরীক্ষার ফলাফল:

 

পরীক্ষার সাল

অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীর সংখ্যা

উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীর সংখ্যা

মোট কর্তকার্য

পাশের হার

ছাত্র

ছাত্রী

মোট

ছাত্র

ছাত্রী

মোট

২০১০

২৪

০৮

৩২

০৬

০৩

০৯

০৯

২৮.১৩%

২০১২

৪৭

১৫

৬২

২১

০৫

২৬

২৬

৪১.৯৪%

২০১১

৪৫

০৯

৫৪

১৫

০০

১৫

১৫

২৭.৭৮%

২০১০

২৪

০৮

৩২

০৬

০৩

০৯

০৯

২৮.১৩%

 

বিগত ৫ বছরের এস.এস.সি পরীক্ষার ফলাফল:

 

পরীক্ষার সাল

অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীর সংখ্যা

উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীর সংখ্যা

মোট কর্তকার্য

পাশের হার

ছাত্র

ছাত্রী

মোট

ছাত্র

ছাত্রী

মোট

২০১৪

২০

০২

২২

১৭

০০

১৭

১৭

৭৭.২৭%

২০১৩

২৭

০৫

৩২

২০

০৪

২৪

২৪

৭৫%

২০১২

৩৭

০৪

৪১

২০

০১

২১

২১

৫১.১২%

২০১১

৫২

১০

৬২

১০

০২

১২

১২

১৯.৩৫%

২০১০

২২

০৯

৩১

০৯

০৬

১৫

১৫

৪৮.৩৯%

শ্রেণী

টেলেন্টপুল

সাধারণ

মোট

ষ-ষ্ঠ

-

০২

০২

             এছাড়াও ১০ম শ্রেণীতে অধ্যয়নরত একজন শিক্ষার্থী শ্রবণ ও দৃষ্টি প্রতিবন্ধি বৃত্তির টাকা পায়।

২০১৩ সালে উপজেলা পর্যায়ে ফুটবল ক্রীড়া প্রতিযোগীতায় চ্যাম্পিয়ন হয়।

১। শিক্ষকের পদ সৃষ্টির জন্য পদক্ষেপ গ্রহণ করা।

২। অভিভাবক ও স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের সমন্বয়ে বিদ্যালয়ের সার্বিক উন্নয়নের পরিকল্পনা করা।

৩। ছাত্র-ছাত্রীর সংখ্যা বৃদ্ধি করার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা।

১। রাঙ্গামাটি সদর হতে লঞ্চ যোগে লংগদু।

২। মোবাইল/ টেলিফোনের মাধ্যমে।

শিক্ষক সংকটের কারণে ভাল ছাত্র-ছাত্রী ভর্তি হয় না। তাই মেধাবী শিক্ষার্থী নাই।